মঙ্গলবার, ২৬ অক্টোবর ২০২১, ০১:৩৯ পূর্বাহ্ন

ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গীতে সরকারি চাল কেলেঙ্কারিতে নারী ইউপি সদস্য কুলসুম বেগম বরখাস্ত।

ফজলুর রহমানঃ / ২৪০ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময়ঃ সোমবার, ১৮ মে, ২০২০

 
ঠাকুরগাঁও জেলার বালিয়াডাঙ্গী উপজেলায় সরকারি চাল আত্মসাত করে মজুদ রাখার দায়ে ৪ নং বড় পলাশবাড়ী ইউনিয়নের ৭, ৮ ও ৯ নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত মহিলা সদস্য কুলসুম বেগম সহ ৬ জনের বিরুদ্ধে মামলার প্রেক্ষিতে তাকে সাময়িক বরখাস্ত করেছে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগ। সোমবার (১৮ মে) স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব মোহাম্মদ ইফতেখার আহমেদ চৌধূরী স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে বলা হয় । ঠাকুরগাঁও জেলার বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার ৪ নং বড় পলাশবাড়ী ইউনিয়নের ৭, ৮ ও ৯ নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত মহিলা সদস্য কুলসুম বেগম এর বিরুদ্ধে সরকারি চাল আত্মসাত ও মজুদ রাখার অভিযোগের প্রেক্ষিতে তাকে স্থানীয় সরকার (ইউনিয়ন পরিষদ) আইন ২০০৯ এর ৩৪ (১) অনুযায়ী তার স্বীয় পদ থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হলো। এ আদেশ জনস্বার্থে জারি করা হলো এবং তা অবিলম্বে কার্যকর হবে। প্রসঙ্গত, গত ৯ এপ্রিল সকালে ঠাকুরগাঁও জেলার বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার আমজানখোর ইউনিয়ন পরিষদের নারী সদস্য কুলসুম বেগমের কুসলডাঙ্গী বাজারস্থ গুদামে চাল মজুদ করার সময় স্থানীয় লোকজন দেখে ফেলে তারা ইউএনওকে খবর দেন। ইউএনও পুলিশ নিয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে একটি নসিমন থেকে ৬৮ বস্তা ওএসএসের চাল নামিয়ে গুদামজাত করার সময় হাতেনাতে ধরে ফেলেন।
একই ধরনের ৫৬২ বস্তা চাল ঐ গুদামে পাওয়া যায়। এসময় ইউএনও গুদাম সিলগালা করেন। এই গুদামে কুলসুমের স্বামী আমিরুল চালের ব্যবসা করেন। পরে সিলগালাকৃত গুদামগুলোতে অভিযান চালিয়ে আরও ২৫৯ বস্তা একই ধরনের চালের বস্তা আটক করা হয়।
এ ঘটনায় পরদিন ১০ এপ্রিল ৬ জন অভিযুক্তের নাম উল্লেখ করে বালিয়াডাঙ্গী থানায় একটি মামলা দায়ের করেন বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক (ফুড অফিসার) নিখিল চন্দ্র বর্মণ। অভিযুক্তরা হলেন- পান্না কউসার, আমিরুল ইসলাম, ইউপি সদস্য কুলসুম বেগম, সামিরুল ইসলাম, আব্দুর রশিদ, জামিরুল ইসলাম।

ঠাকুরগাঁও জেলার বালিয়াডাঙ্গী উপজেলায় সরকারি চাল আত্মসাত করে মজুদ রাখার দায়ে ৪ নং বড় পলাশবাড়ী ইউনিয়নের ৭, ৮ ও ৯ নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত মহিলা সদস্য কুলসুম বেগম সহ ৬ জনের বিরুদ্ধে মামলার প্রেক্ষিতে তাকে সাময়িক বরখাস্ত করেছে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগ। সোমবার (১৮ মে) স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব মোহাম্মদ ইফতেখার আহমেদ চৌধূরী স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে বলা হয় । ঠাকুরগাঁও জেলার বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার ৪ নং বড় পলাশবাড়ী ইউনিয়নের ৭, ৮ ও ৯ নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত মহিলা সদস্য কুলসুম বেগম এর বিরুদ্ধে সরকারি চাল আত্মসাত ও মজুদ রাখার অভিযোগের প্রেক্ষিতে তাকে স্থানীয় সরকার (ইউনিয়ন পরিষদ) আইন ২০০৯ এর ৩৪ (১) অনুযায়ী তার স্বীয় পদ থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হলো। এ আদেশ জনস্বার্থে জারি করা হলো এবং তা অবিলম্বে কার্যকর হবে। প্রসঙ্গত, গত ৯ এপ্রিল সকালে ঠাকুরগাঁও জেলার বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার বড়পলাশবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদের নারী সদস্য কুলসুম বেগমের কুসলডাঙ্গী বাজারস্থ গুদামে চাল মজুদ করার সময় স্থানীয় লোকজন দেখে ফেলে তারা ইউএনওকে খবর দেন। ইউএনও পুলিশ নিয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে একটি নসিমন থেকে ৬৮ বস্তা ওএসএসের চাল নামিয়ে গুদামজাত করার সময় হাতেনাতে ধরে ফেলেন।
একই ধরনের ৫৬২ বস্তা চাল ঐ গুদামে পাওয়া যায়। এসময় ইউএনও গুদাম সিলগালা করেন। এই গুদামে কুলসুমের স্বামী আমিরুল চালের ব্যবসা করেন। পরে সিলগালাকৃত গুদামগুলোতে অভিযান চালিয়ে আরও ২৫৯ বস্তা একই ধরনের চালের বস্তা আটক করা হয়।
এ ঘটনায় পরদিন ১০ এপ্রিল ৬ জন অভিযুক্তের নাম উল্লেখ করে বালিয়াডাঙ্গী থানায় একটি মামলা দায়ের করেন বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক (ফুড অফিসার) নিখিল চন্দ্র বর্মণ। অভিযুক্তরা হলেন- পান্না কউসার, আমিরুল ইসলাম, ইউপি সদস্য কুলসুম বেগম, সামিরুল ইসলাম, আব্দুর রশিদ, জামিরুল ইসলাম।


আপনার মতামত লিখুন :

One response to “ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গীতে সরকারি চাল কেলেঙ্কারিতে নারী ইউপি সদস্য কুলসুম বেগম বরখাস্ত।”

  1. সঠিক বিচার হয়েছে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ