ভোর ৫:২৫ | বৃহস্পতিবার | ১২ই ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং | ২৮শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে কিশোরীকে দলবেঁধে ৫ দিন ধরে আটকে গণধর্ষণ

কিশোরগঞ্জের কটিয়াদীতে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে এক কিশোরীকে (১৫) টানা পাঁচদিন ধরে বিভিন্ন জায়গায় নিয়ে গণধর্ষণ করেছে প্রেমিক ও তার বন্ধুরা। এ ঘটনায় সহায়তা ও ধামাচাপায় জড়িত থাকার অভিযোগে কটিয়াদীর লোহাজুরি ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য আব্দুর রশিদকে (৩৫) মঙ্গলবার গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এর আগে কিশোরীর বাবা সোমবার কটিয়াদী মডেল থানায় চার জনের নাম উল্লেখ করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা করেন।

কিশোরীর পরিবার ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গত বুধবার রাত সাড়ে আটটার সময় সুমন মেয়েটিকে ফোন করে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে বাড়ি থেকে বের করে আনে। পরে সুমন ও তার বন্ধু লোহাজুরি ইউনিয়নের দশপাখি গ্রামের জুলহাস উদ্দিনের ছেলে শোভন (২৩) মোটরসাইকেলে করে পূর্বচর পাড়তালা গ্রামের একটি নির্মাণাধীন দোতলা বাড়ির নিচতলায় একটি কক্ষে নিয়ে যায়। পরে রাতে কথিত প্রেমিক সুমন, শোভন ও পূর্বচর পাড়াতলার গিয়াস উদ্দিনের ছেলে শামীম (২৫) দলবেঁধে মেয়েটিকে ধর্ষণ করে।

এরপর আবার ওই রাতেই তারা স্থানীয় ইউপি সদস্য রশিদের সহযোগিতায় মেয়েটিকে পার্শ্ববর্তী পাকুন্দিয়া উপজেলার একটি নির্জন বাড়িতে নিয়ে যায়। এরপর আরও তিনদিন ওই কিশোরীকে লাগাতার ধর্ষণ করা হয়। পালাক্রমে গণধর্ষণের ফলে মেয়েটি অসুস্থ হয়ে যাওয়ায় গত রোববার রাত আটটার দিকে কিশোরীকে আসামিরা তার বাড়ির সামনে রেখে পালিয়ে যায়। কটিয়াদী মডেল থানার দায়িত্বপ্রাফত ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শফিকুল ইসলাম বলেন, ধর্ষণের শিকার মেয়েটিকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য সিভিল সার্জনের কার্যালয়ে পাঠানো হয়েছে। মামলার পর ইউপি সদস্য রশিদকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাছাড়া অন্য আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

গভীর রাতে মেয়েকে ঘর থেকে বারান্দায় এনে ধর্ষণ চেষ্টার সময় বাবা আটক!

ফরিদপুরের ভাঙ্গায় নিজের কিশোরী মেয়েকে (১৫) ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে শহীদুল ফকির (৪৫) নামে এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সোমবার (২০ মে) রাতে ভাঙ্গা উপজেলার নূরুল্যাগঞ্জ ইউনিয়নের একটি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় মঙ্গলবার স্বামীকে একমাত্র আসামি করে শহীদুলের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে মামলা করেন ওই কিশোরীর মা।

মামলার এজাহার, এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, শহীদুল ফকির মাছ ধরে জীবিকা নির্বাহ করেন। তার দুই ছেলে-মেয়ের মধ্যে মেয়ে বড়। স্বামীর কুমতলব টের পেয়ে মেয়েকে সম্প্রতি বিয়ে দিয়ে দেন মা। কিন্তু মেয়ের স্বামী বিদেশে চলে যাওয়ায় সে কয়েক দিনের জন্য বাবার বাড়িতে আসে। বাবার কুদৃষ্টির কারণে সে নিজের বাড়িতে না ঘুমিয়ে বাড়ির পাশে চাচার বাড়িতে ঘুমায়।

সোমবার রাতে তার ভাই অন্যত্র বেড়াতে যাওয়ায় রাতে সে মায়ের সাথে ঘুমাতে যায়। ওই সুযোগে তার বাবা তাকে ঘরের বারান্দায় নিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা করেন। মেয়ের চিৎকারে তার মা জেগে ওঠেন। তিনি চিৎকার দিলে এলাকাবাসী এগিয়ে এসে শহীদুলকে ধরে বেধে রেখে থানায় খবর দেন।

ভাঙ্গা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) নিখিল অধিকারী জানায়, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে শহীদুলকে মঙ্গলবার আটক করে। শহীদুলের স্ত্রী তার স্বামীকে একমাত্র আসামি করে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে একটি মামলা করেন। মঙ্গলবার শহীদুলকে ওই মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে জেলার মূখ্য বিচারিক হাকিমের আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।

Facebook Comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» খাতুনগঞ্জের আড়ত থেকে বের হলো ১৫ টন পচা পেঁয়াজ

» আলফাডাঙ্গায় সাংবাদিক আহতের প্রতিবাদে মানববন্ধন ও স্বারকলিপি প্রদান

» আলফাডাঙ্গায় বারাশিয়া চন্দনা নদী দখল করে প্রভাবশালীর ভবন নির্মান

» মন্ত্রী-এমপিদের প্রতি কঠোর হুঁশিয়ারি প্রধানমন্ত্রীর

» ইঞ্জিনিয়ারিং ছেড়ে বাসের স্টিয়ারিং ধরলেন তরুণী!

» রিফাতকে হত্যার আগের দিনও নয়ন বন্ডের বাসায় যায় মিন্নি

» শ্রীপুরে টেক্সটাইল মিলে আগুন, দগ্ধ ৫

» শাকিব খানের ছবি থেকে বুবলী বাদ

» আজও অতি ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস, ভূমিধসের সতর্কতা

» সেরাদের লড়াইয়ে এগিয়ে সাকিব

» যেভাবে ৭ দিন সমুদ্রে ভেসে থাকার পর বাংলাদেশে জীবিত উদ্ধার হলেন রবীন্দ্রনাথ দাস

» দর্শনার্থীর মোবাইল কেড়ে নিয়ে বানরের সেলফি

» অভিনেতা অপূর্ব’র ছোট ভাই দ্বীপ আত্মহত্যা করেছেন

» টয়লেটে প্রসব, নিজে নাড়ি কেটে ছেলেকে ডাস্টবিনে ফেলে গেল মা!

» বিকিনি পরা ছবি শেয়ার করে লাইসেন্স হারালেন সুন্দরী চিকিৎসক!

Biggapon

Biggapon

সদস্য মণ্ডলীঃ-

সম্পাদকঃ এ, বি মালেক (স্বপ্নিল)
সহঃ সম্পাদকঃ মোঃ লতিফুল ইসলাম
উপদেষ্টাঃ আব্দুল্লাহ আল মামুন
আইটি উপদেষ্টাঃ মাহির শাহরিয়ার শিশির
আইটি সম্পাদকঃ আসাদ্দুজামান সাগর
প্রকাশক ও নির্বাহী পরিচালক (CEO):
ইঞ্জিনিয়ার এম, এ, মালেক (জীবন)

যোগাযোগঃ-

৮৬৮ কাজীপাড়া, মিরপুর-১০, মিরপুর, ঢাকা, বাংলাদেশ-১২১৬।
ইমেইলঃ info@dailynewsbd24.com, dailynewsbd247@gmail.com,
ওয়েবঃ www.dailynewsbd24.com
মোবাইলঃ +৮৮-০১৯৯৩৩৩৯৯৯৪-৯৯৬,
+৮৮-০১৭২১৫৬৭৭৮৯

Design & Devaloped BY Creation IT BD Limited

,

বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে কিশোরীকে দলবেঁধে ৫ দিন ধরে আটকে গণধর্ষণ

কিশোরগঞ্জের কটিয়াদীতে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে এক কিশোরীকে (১৫) টানা পাঁচদিন ধরে বিভিন্ন জায়গায় নিয়ে গণধর্ষণ করেছে প্রেমিক ও তার বন্ধুরা। এ ঘটনায় সহায়তা ও ধামাচাপায় জড়িত থাকার অভিযোগে কটিয়াদীর লোহাজুরি ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য আব্দুর রশিদকে (৩৫) মঙ্গলবার গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এর আগে কিশোরীর বাবা সোমবার কটিয়াদী মডেল থানায় চার জনের নাম উল্লেখ করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা করেন।

কিশোরীর পরিবার ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গত বুধবার রাত সাড়ে আটটার সময় সুমন মেয়েটিকে ফোন করে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে বাড়ি থেকে বের করে আনে। পরে সুমন ও তার বন্ধু লোহাজুরি ইউনিয়নের দশপাখি গ্রামের জুলহাস উদ্দিনের ছেলে শোভন (২৩) মোটরসাইকেলে করে পূর্বচর পাড়তালা গ্রামের একটি নির্মাণাধীন দোতলা বাড়ির নিচতলায় একটি কক্ষে নিয়ে যায়। পরে রাতে কথিত প্রেমিক সুমন, শোভন ও পূর্বচর পাড়াতলার গিয়াস উদ্দিনের ছেলে শামীম (২৫) দলবেঁধে মেয়েটিকে ধর্ষণ করে।

এরপর আবার ওই রাতেই তারা স্থানীয় ইউপি সদস্য রশিদের সহযোগিতায় মেয়েটিকে পার্শ্ববর্তী পাকুন্দিয়া উপজেলার একটি নির্জন বাড়িতে নিয়ে যায়। এরপর আরও তিনদিন ওই কিশোরীকে লাগাতার ধর্ষণ করা হয়। পালাক্রমে গণধর্ষণের ফলে মেয়েটি অসুস্থ হয়ে যাওয়ায় গত রোববার রাত আটটার দিকে কিশোরীকে আসামিরা তার বাড়ির সামনে রেখে পালিয়ে যায়। কটিয়াদী মডেল থানার দায়িত্বপ্রাফত ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শফিকুল ইসলাম বলেন, ধর্ষণের শিকার মেয়েটিকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য সিভিল সার্জনের কার্যালয়ে পাঠানো হয়েছে। মামলার পর ইউপি সদস্য রশিদকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাছাড়া অন্য আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

গভীর রাতে মেয়েকে ঘর থেকে বারান্দায় এনে ধর্ষণ চেষ্টার সময় বাবা আটক!

ফরিদপুরের ভাঙ্গায় নিজের কিশোরী মেয়েকে (১৫) ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে শহীদুল ফকির (৪৫) নামে এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সোমবার (২০ মে) রাতে ভাঙ্গা উপজেলার নূরুল্যাগঞ্জ ইউনিয়নের একটি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় মঙ্গলবার স্বামীকে একমাত্র আসামি করে শহীদুলের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে মামলা করেন ওই কিশোরীর মা।

মামলার এজাহার, এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, শহীদুল ফকির মাছ ধরে জীবিকা নির্বাহ করেন। তার দুই ছেলে-মেয়ের মধ্যে মেয়ে বড়। স্বামীর কুমতলব টের পেয়ে মেয়েকে সম্প্রতি বিয়ে দিয়ে দেন মা। কিন্তু মেয়ের স্বামী বিদেশে চলে যাওয়ায় সে কয়েক দিনের জন্য বাবার বাড়িতে আসে। বাবার কুদৃষ্টির কারণে সে নিজের বাড়িতে না ঘুমিয়ে বাড়ির পাশে চাচার বাড়িতে ঘুমায়।

সোমবার রাতে তার ভাই অন্যত্র বেড়াতে যাওয়ায় রাতে সে মায়ের সাথে ঘুমাতে যায়। ওই সুযোগে তার বাবা তাকে ঘরের বারান্দায় নিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা করেন। মেয়ের চিৎকারে তার মা জেগে ওঠেন। তিনি চিৎকার দিলে এলাকাবাসী এগিয়ে এসে শহীদুলকে ধরে বেধে রেখে থানায় খবর দেন।

ভাঙ্গা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) নিখিল অধিকারী জানায়, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে শহীদুলকে মঙ্গলবার আটক করে। শহীদুলের স্ত্রী তার স্বামীকে একমাত্র আসামি করে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে একটি মামলা করেন। মঙ্গলবার শহীদুলকে ওই মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে জেলার মূখ্য বিচারিক হাকিমের আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।

Facebook Comments

সর্বশেষ আপডেট



এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সদস্য মণ্ডলীঃ-

সম্পাদকঃ এ, বি মালেক (স্বপ্নিল)
সহঃ সম্পাদকঃ মোঃ লতিফুল ইসলাম
উপদেষ্টাঃ আব্দুল্লাহ আল মামুন
আইটি উপদেষ্টাঃ মাহির শাহরিয়ার শিশির
আইটি সম্পাদকঃ আসাদ্দুজামান সাগর
প্রকাশক ও নির্বাহী পরিচালক (CEO):
ইঞ্জিনিয়ার এম, এ, মালেক (জীবন)

যোগাযোগঃ-

৮৬৮ কাজীপাড়া, মিরপুর-১০, মিরপুর, ঢাকা, বাংলাদেশ-১২১৬।
ইমেইলঃ info@dailynewsbd24.com, dailynewsbd247@gmail.com,
ওয়েবঃ www.dailynewsbd24.com
মোবাইলঃ +৮৮-০১৯৯৩৩৩৯৯৯৪-৯৯৬,
+৮৮-০১৭২১৫৬৭৭৮৯

Design & Devaloped BY Creation IT BD Limited