সকাল ৭:৪১ | শনিবার | ২১শে জুলাই, ২০১৮ ইং | ৬ই শ্রাবণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

প্রাণ আপ

pran-up-add

ফেসবুক-ইউটিউব-গুগল করের আওতায় আসছে…!!!

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুক, ভিডিও দেখার সাইট ইউটিউব এবং সর্ববৃহৎ অনুসন্ধান ইঞ্জিন গুগলকে করের আওতায় আনা হবে বলে জানিয়েছেন জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া।

বুধবার (৪ এপ্রিল) জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) সম্মেলন কক্ষে সংবাদপত্র শিল্প মালিকদের সংগঠন নিউজপেপার ওনার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (নোয়াব) এবং অ্যাসোসিয়েশন অব টেলিভিশন চ্যানেল ওনার্স (অ্যাটকো) নেতাদের নিয়ে অনুষ্ঠিত প্রাক-বাজেট আলোচনায় তিনি একথা বলেন। নোয়াব নেতাদের প্রস্তাবের প্রেক্ষিতে তিনি একথা বলেন।

সভায় সেবাশিল্প হিসেবে সংবাদপত্রকে ভ্যাট-ট্যাক্সের আওতার বাইরে রাখারও প্রস্তাব করেন নোয়াব নেতারা। আর বিদেশি চ্যানেল সম্প্রচারে ল্যান্ডিং ফি নির্ধারণ, বিজ্ঞাপনে মূল্য সংযোজন কর (মূসক) ব্যবস্থা সহজ করার প্রস্তাব করেন অ্যাটকো নেতারা।

সভায় নোয়াবের সভাপতি ও দৈনিক প্রথম আলোর সম্পাদক মতিউর রহমান বলেন, ‘বিশ্বে সংবাদপত্র পুরনো শিল্প। টেলিভিশন, অনলাইন, ফেসবুক, ইউটিউব, গুগলের কারণে পাঠক হারাচ্ছে সংবাদপত্র। ফলে এ শিল্পের বিজ্ঞাপন থেকে আয় কমছে।

বাংলাদেশে বিগত কয়েক বছরে ৮-১০ শতাংশ হারে সংবাদপত্রের পাঠক কমছে। সরকারি এবং ব্যক্তিপর্যায়ের বিজ্ঞাপন থেকেও সংবাদপত্রের আয় কমে যাচ্ছে। বর্তমানে এটি একটি রুগ্ন শিল্প।

আগামী ১০ বছর পর এ শিল্প থাকবে কিনা তা নিয়ে কথা হচ্ছে। ২০০৬ সালে সংবাদপত্রকে শিল্প হিসেবে ঘোষণা করা হয়। ২০১৪ সালে সেবাশিল্প হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া হয়।

দেশের অভ্যন্তরে সংবাদপত্রের আয় কমে গেছে, এর ওপর নতুন উপদ্রব হিসেবে দেখা দিয়েছে ফেসবুক-ইউটিউবে বিজ্ঞাপন প্রচার। ফেসবুক-ইউটিউবে প্রচারিত বিজ্ঞাপনে সরকারের কোনও নিয়ন্ত্রণ নেই। এ নিয়ে আমরা অর্থ মন্ত্রণালয়, বাংলাদেশ ব্যাংককে চিঠি দিয়েছি।

বাংলাদেশ ব্যাংক বলেছে, ফেসবুক-ইউটিউবে প্রচারিত বিজ্ঞাপনের লাভের অংশ কীভাবে সরকার পেতে পারে। ইউরোপসহ বিভিন্ন দেশ তুমুল যুদ্ধ করে ফেসবুক, ইউটিউব থেকে সুযোগ আদায় করেছে। ফেসবুক, ইউটিউব, গুগল থেকে রাজস্ব আয়ে কমিটি করলে তাতে সহযোগিতা লাগলে আমরা করবো।’

এ ব্যাপারে এনবিআর চেয়ারম্যান বলেন, ‘বাজেটে এর প্রতিফলন থাকবে। ফেসবুক, ইউটিউব, গুগলকে অনেক সুযোগ দেওয়া হয়েছে। এখন তাদের করের আওতায় আনা হবে।’

নোয়াব সভাপতি প্রশ্ন রাখেন, ‘সংবাদপত্র শিল্পে করপোরেট কর ৩৫ শতাংশ। যদি সেবাশিল্প হয়, তাহলে ৩৫ শতাংশ কর্পোরেট কর যৌক্তিক কিনা?’ অগ্রিম আয়কর প্রত্যাহার, নিউজপ্রিন্ট আমদানিতে কর প্রত্যাহার, কর্পোরেট করহার হ্রাস, বিজ্ঞাপনের ওপর অগ্রিম আয়কর ও ভ্যাট প্রত্যাহার করার প্রস্তাবও করেন নোয়াব সভাপতি। একইসঙ্গে সেবাশিল্প হিসেবে দেশের উন্নয়ন, অগ্রগতিতে ভূমিকা রাখায় সংবাদপত্র শিল্পকে সম্পূর্ণ করমুক্ত রাখার প্রস্তাব করেন তিনি।

মতিউর রহমান বলেন, ‘সরকারি বিজ্ঞাপনের রেট খুবই কম। এর ওপর সরকার ই-টেন্ডারে চলে যাচ্ছে। সরকারি বিজ্ঞাপনের বিল পেতে ভোগান্তি পোহাতে হয়। আমরা একটা হিসাব করে দেখেছি, সরকারি বিজ্ঞাপনে প্রায় ১০০ কোটি টাকা বকেয়া রয়েছে। সংবাদপত্রের টিকে থাকা এখন বড় চ্যালেঞ্জ।’

মতিউর রহমানের সঙ্গে একমত পোষণ করে এনবিআর চেয়ারম্যান বলেন, ‘বিষয়টি নিয়ে তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে সমন্বয়ের ভিত্তিতে কাজ করতে একটি কমিটি গঠন করা হবে।’

ডেইলি স্টার পত্রিকার সম্পাদক মাহফুজ আনাম বলেন, ‘আয়কর আইনে অন্য সব শিল্প প্রতিষ্ঠানের জন্য এক ধরনের নীতি ও সংবাদপত্রের জন্য আলাদা নীতি। সাধারণ নিয়ম অনুযায়ী মূল বেতনের ৪০ শতাংশ পর্যন্ত বাড়ি ভাড়া পান চাকরিজীবীরা; যা করমুক্ত।

তবে সংবাদপত্রে এটি ৬৫ শতাংশ হওয়ায় ২৫ শতাংশের ওপর কর দিতে হয় সংবাদপত্র মালিকদের। এটি তুলে দেওয়া দরকার।’ এ ব্যাপারে এনবিআর চেয়ারম্যান বলেন, ‘সংবাদকর্মীদের বাড়ি ভাড়ার ভাতার ওপর কর প্রত্যাহার করা হবে।’

অ্যাটকোর সহ-সভাপতি মোজাম্মেল বাবু বলেন, ‘আমরা দীর্ঘদিন ধরেই দেখে আসছি, আমাদের দেশে বিদেশি চ্যানেল প্রচারে কোনও ধরনের ফি দিতে হয় না। আমাদের দেশের চ্যানেল অন্য কোনও দেশে প্রচার করলেই সংশ্লিষ্ট দেশকে ল্যান্ডিং ফি দিতে হয়।

পৃথিবীর প্রায় সব দেশেই এটা চালু রয়েছে। এসব চ্যানেলের বিজ্ঞাপন আয় থেকে রেভিনিউ বঞ্চিত হওয়ার পাশাপাশি সংকটে পড়ছে দেশীয় টিভি চ্যানেলগুলো। প্রাথমিকভাবে খেলা ও খবরের চ্যানেলগুলো বাদ দিয়ে বাকি সব চ্যানেলের ওপর ল্যান্ডিং চার্জ আরোপ করা দরকার।’

দেশে কেবল অপারেটরদের কাছে টিভি মালিকরা জিম্মি উল্লেখ করে সব অপারেটরদের ডিজিটাল তথ্যভাণ্ডারের মধ্যে নিয়ে আসার প্রস্তাব করেন তিনি। এটি হলে সরকার বছরে দেড় হাজার কোটি টাকার ভ্যাট আদায় করতে পারবে বলেও তিনি জানান। এ বিষয়ে একমত পোষণ করে একটি কমিটি গঠন করে কাজ করার প্রতিশ্রুতি দেন এনবিআর চেয়ারম্যান।

অ্যাটকোর চেয়ারম্যান সালমান এফ রহমান বলেন, ‘ফেসবুক-ইউটিউবের কারণে দেশের গণমাধ্যম সংকটে পড়েছে। এগুলোকে আইনের মধ্যে নিয়ে আসলে সবাই উপকৃত হবে।

সংবাদপত্র শিল্প বেঁচে থাকবে।’ আগামী বাজেটে এ বিষয়গুলোর পাশাপাশি রফতানিবান্ধব নীতি করার প্রস্তাব দেন তিনি। তৈরি পোশাকের পাশাপাশি নতুন নতুন রফতানি শিল্প গড়ে ওঠার উপযোগী বাজেট প্রণয়নেরও প্রস্তাব করেন তিনি।

সভায় এনবিআর চেয়ারম্যান মো. মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া সভাপতিত্ব করেন। এতে প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী, অ্যাটকোর সহ-সভাপতি আরিফ হাসান, পরিচালক ফারজানা মুন্নি প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে ইকোনমিক রিপোর্টার্স ফোরামের (ইআরএফ) সঙ্গে প্রাক বাজেট আলোচনা সভায় জনপ্রিয় রাইড সার্ভিস উবারে কর বসানো, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ছাত্রছাত্রীদের জন্য আমদানি করা ইয়োলো বাসে শুল্ক সুবিধা প্রদান, ভূমি নিবন্ধন ফি কমানোসহ কিছু প্রস্তাব করা হয়। এনবিআর চেয়ারম্যান এসব বিষয়ে একমত পোষণ করেন।

Facebook Comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» গার্মেন্টস শ্রমিকদের ন্যূনতম মজুরি ১৬ হাজার করার দাবি

» বাংলাদেশে আসছেন ফুটবল জাদুকরঃ লিউনেল মেসি

» বাংলাদেশ সমাজসেবা অধিদপ্তরে বিশাল নিয়োগ

» এবার ১০ দিনের রিমান্ডে রাশেদ

» বিএনপি জোটে আসছে আরও ৫ দল

» প্রাথমিকের শিক্ষক নিয়োগ MCQ পরীক্ষার ১ম থেকে ৪র্থ ধাপের ফলাফল প্রকাশ।

» গঙ্গাচড়ায় আনন্দ এ্যাগ্রোর বিদ্যুৎ পাওয়ার প্লান্ট তৈরীর কাজে বাধা দেয়ার অভিযোগ

» আন্দোলনে যাচ্ছেন সেকায়েপ শিক্ষকরা

» যুব উন্নয়ন কর্মকর্তাসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে মামলা গঙ্গাচড়ায় ন্যাশনাল সার্ভিসের কাগজপত্রসহ ২ যুবক আটক

» বিকাশের টাকা ‘ছিনতাই নাটক’! শেষ রক্ষা হল না

» ‘মায়ের দু‘আ আমাকে কাবা শরীফের ইমাম বানিয়েছে‘

» হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ আর নেই || এমনটিই বলছে গুগল

» লেখক ও সাংবাদিক মনিরুল ইসলাম রয়েলের ওপর হামলা!

» ভারতের সঙ্গে ম্যাচ জিতে সংবাদ সম্মেলনে যা বললেন সালমা!

» লাইলাতুল কদরের বিশেষ কিছু দোয়া ও ফজিলত

Biggapon

Biggapon

সদস্য মণ্ডলীঃ-

সম্পাদকঃ এ, বি মালেক (স্বপ্নিল)
সহঃ সম্পাদকঃ মোঃ লতিফুল ইসলাম
উপদেষ্টাঃ আব্দুল্লাহ আল মামুন
আইটি উপদেষ্টাঃ মাহির শাহরিয়ার শিশির
আইটি সম্পাদকঃ আসাদ্দুজামান সাগর
প্রকাশক ও নির্বাহী পরিচালক (CEO):
ইঞ্জিনিয়ার এম, এ, মালেক (জীবন)

যোগাযোগঃ-

৮৬৮ কাজীপাড়া, মিরপুর-১০, মিরপুর, ঢাকা, বাংলাদেশ-১২১৬।
ইমেইলঃ info@dailynewsbd24.com, dailynewsbd247@gmail.com,
ওয়েবঃ www.dailynewsbd24.com
মোবাইলঃ +৮৮-০১৯৯৩৩৩৯৯৯৪-৯৯৬,
+৮৮-০১৭২১৫৬৭৭৮৯

Design & Devaloped BY Creation IT BD Limited

,

ফেসবুক-ইউটিউব-গুগল করের আওতায় আসছে…!!!

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুক, ভিডিও দেখার সাইট ইউটিউব এবং সর্ববৃহৎ অনুসন্ধান ইঞ্জিন গুগলকে করের আওতায় আনা হবে বলে জানিয়েছেন জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া।

বুধবার (৪ এপ্রিল) জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) সম্মেলন কক্ষে সংবাদপত্র শিল্প মালিকদের সংগঠন নিউজপেপার ওনার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (নোয়াব) এবং অ্যাসোসিয়েশন অব টেলিভিশন চ্যানেল ওনার্স (অ্যাটকো) নেতাদের নিয়ে অনুষ্ঠিত প্রাক-বাজেট আলোচনায় তিনি একথা বলেন। নোয়াব নেতাদের প্রস্তাবের প্রেক্ষিতে তিনি একথা বলেন।

সভায় সেবাশিল্প হিসেবে সংবাদপত্রকে ভ্যাট-ট্যাক্সের আওতার বাইরে রাখারও প্রস্তাব করেন নোয়াব নেতারা। আর বিদেশি চ্যানেল সম্প্রচারে ল্যান্ডিং ফি নির্ধারণ, বিজ্ঞাপনে মূল্য সংযোজন কর (মূসক) ব্যবস্থা সহজ করার প্রস্তাব করেন অ্যাটকো নেতারা।

সভায় নোয়াবের সভাপতি ও দৈনিক প্রথম আলোর সম্পাদক মতিউর রহমান বলেন, ‘বিশ্বে সংবাদপত্র পুরনো শিল্প। টেলিভিশন, অনলাইন, ফেসবুক, ইউটিউব, গুগলের কারণে পাঠক হারাচ্ছে সংবাদপত্র। ফলে এ শিল্পের বিজ্ঞাপন থেকে আয় কমছে।

বাংলাদেশে বিগত কয়েক বছরে ৮-১০ শতাংশ হারে সংবাদপত্রের পাঠক কমছে। সরকারি এবং ব্যক্তিপর্যায়ের বিজ্ঞাপন থেকেও সংবাদপত্রের আয় কমে যাচ্ছে। বর্তমানে এটি একটি রুগ্ন শিল্প।

আগামী ১০ বছর পর এ শিল্প থাকবে কিনা তা নিয়ে কথা হচ্ছে। ২০০৬ সালে সংবাদপত্রকে শিল্প হিসেবে ঘোষণা করা হয়। ২০১৪ সালে সেবাশিল্প হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া হয়।

দেশের অভ্যন্তরে সংবাদপত্রের আয় কমে গেছে, এর ওপর নতুন উপদ্রব হিসেবে দেখা দিয়েছে ফেসবুক-ইউটিউবে বিজ্ঞাপন প্রচার। ফেসবুক-ইউটিউবে প্রচারিত বিজ্ঞাপনে সরকারের কোনও নিয়ন্ত্রণ নেই। এ নিয়ে আমরা অর্থ মন্ত্রণালয়, বাংলাদেশ ব্যাংককে চিঠি দিয়েছি।

বাংলাদেশ ব্যাংক বলেছে, ফেসবুক-ইউটিউবে প্রচারিত বিজ্ঞাপনের লাভের অংশ কীভাবে সরকার পেতে পারে। ইউরোপসহ বিভিন্ন দেশ তুমুল যুদ্ধ করে ফেসবুক, ইউটিউব থেকে সুযোগ আদায় করেছে। ফেসবুক, ইউটিউব, গুগল থেকে রাজস্ব আয়ে কমিটি করলে তাতে সহযোগিতা লাগলে আমরা করবো।’

এ ব্যাপারে এনবিআর চেয়ারম্যান বলেন, ‘বাজেটে এর প্রতিফলন থাকবে। ফেসবুক, ইউটিউব, গুগলকে অনেক সুযোগ দেওয়া হয়েছে। এখন তাদের করের আওতায় আনা হবে।’

নোয়াব সভাপতি প্রশ্ন রাখেন, ‘সংবাদপত্র শিল্পে করপোরেট কর ৩৫ শতাংশ। যদি সেবাশিল্প হয়, তাহলে ৩৫ শতাংশ কর্পোরেট কর যৌক্তিক কিনা?’ অগ্রিম আয়কর প্রত্যাহার, নিউজপ্রিন্ট আমদানিতে কর প্রত্যাহার, কর্পোরেট করহার হ্রাস, বিজ্ঞাপনের ওপর অগ্রিম আয়কর ও ভ্যাট প্রত্যাহার করার প্রস্তাবও করেন নোয়াব সভাপতি। একইসঙ্গে সেবাশিল্প হিসেবে দেশের উন্নয়ন, অগ্রগতিতে ভূমিকা রাখায় সংবাদপত্র শিল্পকে সম্পূর্ণ করমুক্ত রাখার প্রস্তাব করেন তিনি।

মতিউর রহমান বলেন, ‘সরকারি বিজ্ঞাপনের রেট খুবই কম। এর ওপর সরকার ই-টেন্ডারে চলে যাচ্ছে। সরকারি বিজ্ঞাপনের বিল পেতে ভোগান্তি পোহাতে হয়। আমরা একটা হিসাব করে দেখেছি, সরকারি বিজ্ঞাপনে প্রায় ১০০ কোটি টাকা বকেয়া রয়েছে। সংবাদপত্রের টিকে থাকা এখন বড় চ্যালেঞ্জ।’

মতিউর রহমানের সঙ্গে একমত পোষণ করে এনবিআর চেয়ারম্যান বলেন, ‘বিষয়টি নিয়ে তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে সমন্বয়ের ভিত্তিতে কাজ করতে একটি কমিটি গঠন করা হবে।’

ডেইলি স্টার পত্রিকার সম্পাদক মাহফুজ আনাম বলেন, ‘আয়কর আইনে অন্য সব শিল্প প্রতিষ্ঠানের জন্য এক ধরনের নীতি ও সংবাদপত্রের জন্য আলাদা নীতি। সাধারণ নিয়ম অনুযায়ী মূল বেতনের ৪০ শতাংশ পর্যন্ত বাড়ি ভাড়া পান চাকরিজীবীরা; যা করমুক্ত।

তবে সংবাদপত্রে এটি ৬৫ শতাংশ হওয়ায় ২৫ শতাংশের ওপর কর দিতে হয় সংবাদপত্র মালিকদের। এটি তুলে দেওয়া দরকার।’ এ ব্যাপারে এনবিআর চেয়ারম্যান বলেন, ‘সংবাদকর্মীদের বাড়ি ভাড়ার ভাতার ওপর কর প্রত্যাহার করা হবে।’

অ্যাটকোর সহ-সভাপতি মোজাম্মেল বাবু বলেন, ‘আমরা দীর্ঘদিন ধরেই দেখে আসছি, আমাদের দেশে বিদেশি চ্যানেল প্রচারে কোনও ধরনের ফি দিতে হয় না। আমাদের দেশের চ্যানেল অন্য কোনও দেশে প্রচার করলেই সংশ্লিষ্ট দেশকে ল্যান্ডিং ফি দিতে হয়।

পৃথিবীর প্রায় সব দেশেই এটা চালু রয়েছে। এসব চ্যানেলের বিজ্ঞাপন আয় থেকে রেভিনিউ বঞ্চিত হওয়ার পাশাপাশি সংকটে পড়ছে দেশীয় টিভি চ্যানেলগুলো। প্রাথমিকভাবে খেলা ও খবরের চ্যানেলগুলো বাদ দিয়ে বাকি সব চ্যানেলের ওপর ল্যান্ডিং চার্জ আরোপ করা দরকার।’

দেশে কেবল অপারেটরদের কাছে টিভি মালিকরা জিম্মি উল্লেখ করে সব অপারেটরদের ডিজিটাল তথ্যভাণ্ডারের মধ্যে নিয়ে আসার প্রস্তাব করেন তিনি। এটি হলে সরকার বছরে দেড় হাজার কোটি টাকার ভ্যাট আদায় করতে পারবে বলেও তিনি জানান। এ বিষয়ে একমত পোষণ করে একটি কমিটি গঠন করে কাজ করার প্রতিশ্রুতি দেন এনবিআর চেয়ারম্যান।

অ্যাটকোর চেয়ারম্যান সালমান এফ রহমান বলেন, ‘ফেসবুক-ইউটিউবের কারণে দেশের গণমাধ্যম সংকটে পড়েছে। এগুলোকে আইনের মধ্যে নিয়ে আসলে সবাই উপকৃত হবে।

সংবাদপত্র শিল্প বেঁচে থাকবে।’ আগামী বাজেটে এ বিষয়গুলোর পাশাপাশি রফতানিবান্ধব নীতি করার প্রস্তাব দেন তিনি। তৈরি পোশাকের পাশাপাশি নতুন নতুন রফতানি শিল্প গড়ে ওঠার উপযোগী বাজেট প্রণয়নেরও প্রস্তাব করেন তিনি।

সভায় এনবিআর চেয়ারম্যান মো. মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া সভাপতিত্ব করেন। এতে প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী, অ্যাটকোর সহ-সভাপতি আরিফ হাসান, পরিচালক ফারজানা মুন্নি প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে ইকোনমিক রিপোর্টার্স ফোরামের (ইআরএফ) সঙ্গে প্রাক বাজেট আলোচনা সভায় জনপ্রিয় রাইড সার্ভিস উবারে কর বসানো, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ছাত্রছাত্রীদের জন্য আমদানি করা ইয়োলো বাসে শুল্ক সুবিধা প্রদান, ভূমি নিবন্ধন ফি কমানোসহ কিছু প্রস্তাব করা হয়। এনবিআর চেয়ারম্যান এসব বিষয়ে একমত পোষণ করেন।

Facebook Comments

সর্বশেষ আপডেট



এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সদস্য মণ্ডলীঃ-

সম্পাদকঃ এ, বি মালেক (স্বপ্নিল)
সহঃ সম্পাদকঃ মোঃ লতিফুল ইসলাম
উপদেষ্টাঃ আব্দুল্লাহ আল মামুন
আইটি উপদেষ্টাঃ মাহির শাহরিয়ার শিশির
আইটি সম্পাদকঃ আসাদ্দুজামান সাগর
প্রকাশক ও নির্বাহী পরিচালক (CEO):
ইঞ্জিনিয়ার এম, এ, মালেক (জীবন)

যোগাযোগঃ-

৮৬৮ কাজীপাড়া, মিরপুর-১০, মিরপুর, ঢাকা, বাংলাদেশ-১২১৬।
ইমেইলঃ info@dailynewsbd24.com, dailynewsbd247@gmail.com,
ওয়েবঃ www.dailynewsbd24.com
মোবাইলঃ +৮৮-০১৯৯৩৩৩৯৯৯৪-৯৯৬,
+৮৮-০১৭২১৫৬৭৭৮৯

Design & Devaloped BY Creation IT BD Limited