সকাল ৬:৫১ | রবিবার | ২৩শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং | ৮ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

প্রাণ আপ

pran-up-add

নিষিদ্ধ ওষুধ বিক্রি চলছেই

সরকারি নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও বাজারে বিক্রি হচ্ছে ‘অফকফ্’, ‘তুসকা’ ও ‘ডেক্সপোটেন’ সিরাপ। নিবন্ধন বাতিলকৃত এসব সিরাপের সরবরাহ তো বন্ধ হয়-ইনি , বরং ওষুধের দোকানগুলোতে বিক্রি হচ্ছে উচ্চমূল্যে।

অতিরিক্ত মুনাফার লোভে দেশের শীর্ষস্থানীয় ওষুধ উৎপাদক প্রতিষ্ঠানের এহেন অসাধুতা জনস্বাস্থ্যে বড় ধরনের বিপর্যয়ের কারণ হতে পারে বলে মনে করছে ‘ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর’।

২০১৬ সালের ডিসেম্বরে ওষুধ নিয়ন্ত্রণ কমিটির সভায় ‘সুডোএফিড্রিন’ দিয়ে তৈরি হয় এমন সবধরনের ওষুধের নিবন্ধন বা রেজিস্ট্রেশন বাতিলের নির্দেশ দেওয়া হয় অধিদপ্তরকে।

‘স্যুডোএফিড্রিন’ ওষুধের একটি নেশা জাতীয় উপাদান। ঠাণ্ডা ও সর্দিজনিত কারণে নাক বন্ধ হয়ে গেলে এ উপাদানটি ডিকনজেস্টেন্ট (নাকের কার্যাবলি স্বাভাবিক করতে) হিসেবে কাজ করে।

কিন্তু উদ্দীপক বা উত্তেজক ক্রিয়ার কারণে এটি নেশা ধরানোর উপাদান হিসেবেও বিবেচিত। তাই অনেকেই কম খরচে নেশা করতে ‘স্যুডোএফিড্রিন’যুক্ত সিরাপ গ্রহণ করে থাকেন।

নিয়ন্ত্রণ কমিটির সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, ২০১৭ সালের মার্চে ‘ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর’ ‘স্যুডোএফিড্রিন’ দিয়ে তৈরি সব ওষুধের রেজিস্ট্রেশন বাতিল করে এবং এ জাতীয় ওষুধ উৎপাদক সবগুলো প্রতিষ্ঠানের ব্র্যান্ড রেজিস্ট্রেশন বাতিল করে চিঠি দেয়।

চিঠিতে তিন মাসের মধ্যে বাজার থেকে এ জাতীয় সব ওষুধ প্রত্যাহারপূর্বক ধ্বংস করে ‘ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর’কে অবহিত করতে বলা হয়।

ওষুধ উৎপাদক অন্য প্রতিষ্ঠান ‘স্যুডোএফিড্রিন’ মেশানো সিরাপ ‘তুসকা’ ও ‘অফকফ’ বাজারজাত বন্ধ না করে সরবরাহ অব্যাহত রাখে। বর্তমানে কর্তৃপক্ষকে বৃদ্ধাঙ্গুল দেখিয়ে সিরাপ দু’টি বিক্রি করছে উচ্চমূল্যে।

সূত্রে জানা যায়, রেজিস্ট্রেশন বাতিল করার পরও ‘তুসকা’ ও ‘অফকফ’ সিরাপ বাজারজাত ও বিক্রি করার অভিযোগে  ২০১৭ সালের অক্টোবরে স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যাল লিমিটেডকে কারণ দর্শানোর (শো’কজ) নোটিশ দিয়েছিল ‘ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর’। কিন্তু তাতেও কোনো কাজ হয়নি।

ঢাকার বিভিন্ন এলাকার ফার্মেসিতে খোঁজ নিয়ে দেখা গেছে, নিষিদ্ধ ‘তুসকা’ ও ‘অফকফ’ সিরাপ নির্ধারিত মূল্যের দ্বিগুণ ও তার চেয়ে বেশি দামে বিক্রি হচ্ছে। ভাটারা এলাকায় ৬৫ টাকার ‘তুসকা’ সিরাপ বিক্রি হচ্ছিলো ১৩০ টাকায়।

আর ‘ডেক্সপোটেন’ সিরাপ উৎপাদন করছে এস্কাইফ ফার্মাসিউটিক্যাল লিমিটেড। এই কফ সিরাপটি নেশা হিসেবে সেবন করা হয়। বাজারে নিষিদ্ধ থাকলেও দেদারছে মিলছে ফার্মেসিগুলোতে।

Facebook Comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» ইসলামের পথে নিবেদিত প্রাণ মশিউর রহমান (বাবু)

» নির্বাচনী কার্যক্রম শুরুর ঘোষণা দিলেন প্রতিমন্ত্রী রাঙ্গা

» উদ্বোধন হলো গঙ্গাচড়া শেখ হাসিনা সেতু

» জাতিসংঘের তিনটি শর্ত মেনে নেওয়ার কারণে মির্জা ফখরুল কে বৈঠকে আমন্ত্রণ

» ৩ ঘণ্টায় গুজব চিহ্নিত করে জবাব দেবে সরকার: তারানা হালিম

» মোটর সাইকেল শিল্পে ১৫ লাখ কর্মসংস্থানের লক্ষ্য

» শিশুর মনোযোগ বাড়ানোর উপায়

» খালেদার অনুপস্থিতিতে বিচার চলবে কি না, জানতে চান বিচারক

» রোহিঙ্গাদের রাখাইনে ফিরিয়ে নিতে চাপ অব্যাহত আছে

» এপিএলে দল পেয়েছেন তামিম

» ২৯ সেপ্টেম্বর শুরু যুব এশিয়া কাপ

» মুক্তিযোদ্ধাদের সুবিধা পাবেন ভাই-বোনও

» রপ্তানিতে নগদ সহায়তায় যুক্ত হলো আরো ৯ পণ্য

» শেষ পর্যন্ত মাহিও এই ব্যবসায়!

» জটিল রোগে ভুগছেন আনুশকা

Biggapon

Biggapon

সদস্য মণ্ডলীঃ-

সম্পাদকঃ এ, বি মালেক (স্বপ্নিল)
সহঃ সম্পাদকঃ মোঃ লতিফুল ইসলাম
উপদেষ্টাঃ আব্দুল্লাহ আল মামুন
আইটি উপদেষ্টাঃ মাহির শাহরিয়ার শিশির
আইটি সম্পাদকঃ আসাদ্দুজামান সাগর
প্রকাশক ও নির্বাহী পরিচালক (CEO):
ইঞ্জিনিয়ার এম, এ, মালেক (জীবন)

যোগাযোগঃ-

৮৬৮ কাজীপাড়া, মিরপুর-১০, মিরপুর, ঢাকা, বাংলাদেশ-১২১৬।
ইমেইলঃ info@dailynewsbd24.com, dailynewsbd247@gmail.com,
ওয়েবঃ www.dailynewsbd24.com
মোবাইলঃ +৮৮-০১৯৯৩৩৩৯৯৯৪-৯৯৬,
+৮৮-০১৭২১৫৬৭৭৮৯

Design & Devaloped BY Creation IT BD Limited

,

নিষিদ্ধ ওষুধ বিক্রি চলছেই

সরকারি নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও বাজারে বিক্রি হচ্ছে ‘অফকফ্’, ‘তুসকা’ ও ‘ডেক্সপোটেন’ সিরাপ। নিবন্ধন বাতিলকৃত এসব সিরাপের সরবরাহ তো বন্ধ হয়-ইনি , বরং ওষুধের দোকানগুলোতে বিক্রি হচ্ছে উচ্চমূল্যে।

অতিরিক্ত মুনাফার লোভে দেশের শীর্ষস্থানীয় ওষুধ উৎপাদক প্রতিষ্ঠানের এহেন অসাধুতা জনস্বাস্থ্যে বড় ধরনের বিপর্যয়ের কারণ হতে পারে বলে মনে করছে ‘ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর’।

২০১৬ সালের ডিসেম্বরে ওষুধ নিয়ন্ত্রণ কমিটির সভায় ‘সুডোএফিড্রিন’ দিয়ে তৈরি হয় এমন সবধরনের ওষুধের নিবন্ধন বা রেজিস্ট্রেশন বাতিলের নির্দেশ দেওয়া হয় অধিদপ্তরকে।

‘স্যুডোএফিড্রিন’ ওষুধের একটি নেশা জাতীয় উপাদান। ঠাণ্ডা ও সর্দিজনিত কারণে নাক বন্ধ হয়ে গেলে এ উপাদানটি ডিকনজেস্টেন্ট (নাকের কার্যাবলি স্বাভাবিক করতে) হিসেবে কাজ করে।

কিন্তু উদ্দীপক বা উত্তেজক ক্রিয়ার কারণে এটি নেশা ধরানোর উপাদান হিসেবেও বিবেচিত। তাই অনেকেই কম খরচে নেশা করতে ‘স্যুডোএফিড্রিন’যুক্ত সিরাপ গ্রহণ করে থাকেন।

নিয়ন্ত্রণ কমিটির সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, ২০১৭ সালের মার্চে ‘ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর’ ‘স্যুডোএফিড্রিন’ দিয়ে তৈরি সব ওষুধের রেজিস্ট্রেশন বাতিল করে এবং এ জাতীয় ওষুধ উৎপাদক সবগুলো প্রতিষ্ঠানের ব্র্যান্ড রেজিস্ট্রেশন বাতিল করে চিঠি দেয়।

চিঠিতে তিন মাসের মধ্যে বাজার থেকে এ জাতীয় সব ওষুধ প্রত্যাহারপূর্বক ধ্বংস করে ‘ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর’কে অবহিত করতে বলা হয়।

ওষুধ উৎপাদক অন্য প্রতিষ্ঠান ‘স্যুডোএফিড্রিন’ মেশানো সিরাপ ‘তুসকা’ ও ‘অফকফ’ বাজারজাত বন্ধ না করে সরবরাহ অব্যাহত রাখে। বর্তমানে কর্তৃপক্ষকে বৃদ্ধাঙ্গুল দেখিয়ে সিরাপ দু’টি বিক্রি করছে উচ্চমূল্যে।

সূত্রে জানা যায়, রেজিস্ট্রেশন বাতিল করার পরও ‘তুসকা’ ও ‘অফকফ’ সিরাপ বাজারজাত ও বিক্রি করার অভিযোগে  ২০১৭ সালের অক্টোবরে স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যাল লিমিটেডকে কারণ দর্শানোর (শো’কজ) নোটিশ দিয়েছিল ‘ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর’। কিন্তু তাতেও কোনো কাজ হয়নি।

ঢাকার বিভিন্ন এলাকার ফার্মেসিতে খোঁজ নিয়ে দেখা গেছে, নিষিদ্ধ ‘তুসকা’ ও ‘অফকফ’ সিরাপ নির্ধারিত মূল্যের দ্বিগুণ ও তার চেয়ে বেশি দামে বিক্রি হচ্ছে। ভাটারা এলাকায় ৬৫ টাকার ‘তুসকা’ সিরাপ বিক্রি হচ্ছিলো ১৩০ টাকায়।

আর ‘ডেক্সপোটেন’ সিরাপ উৎপাদন করছে এস্কাইফ ফার্মাসিউটিক্যাল লিমিটেড। এই কফ সিরাপটি নেশা হিসেবে সেবন করা হয়। বাজারে নিষিদ্ধ থাকলেও দেদারছে মিলছে ফার্মেসিগুলোতে।

Facebook Comments

সর্বশেষ আপডেট



এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সদস্য মণ্ডলীঃ-

সম্পাদকঃ এ, বি মালেক (স্বপ্নিল)
সহঃ সম্পাদকঃ মোঃ লতিফুল ইসলাম
উপদেষ্টাঃ আব্দুল্লাহ আল মামুন
আইটি উপদেষ্টাঃ মাহির শাহরিয়ার শিশির
আইটি সম্পাদকঃ আসাদ্দুজামান সাগর
প্রকাশক ও নির্বাহী পরিচালক (CEO):
ইঞ্জিনিয়ার এম, এ, মালেক (জীবন)

যোগাযোগঃ-

৮৬৮ কাজীপাড়া, মিরপুর-১০, মিরপুর, ঢাকা, বাংলাদেশ-১২১৬।
ইমেইলঃ info@dailynewsbd24.com, dailynewsbd247@gmail.com,
ওয়েবঃ www.dailynewsbd24.com
মোবাইলঃ +৮৮-০১৯৯৩৩৩৯৯৯৪-৯৯৬,
+৮৮-০১৭২১৫৬৭৭৮৯

Design & Devaloped BY Creation IT BD Limited