ভোর ৫:২৮ | বৃহস্পতিবার | ১২ই ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং | ২৮শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

নারী ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রী মেনেকা গান্ধী ভারতের স্কুলে কুরআন শিক্ষার প্রস্তাব দিয়েছেন

ভারতের স্কুলগুলোর কচি-কাঁচা শিক্ষার্থীদের জন্য পবিত্র কুরআনুল কারিমসহ পৃথিবীর ছয়টি ধর্মীয় গ্রন্থ শিক্ষার আহ্বান জানান নারী ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রী মেনেকা গান্ধী। বর্তমান বিশ্বে চলমান ধর্মীয় উত্তেজনা ও সহিংসতা কমাতে ও ভ্রান্তি দূর করতে ধর্মীয় শিক্ষার বিকল্প নেই।

ভারতের নারী ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রী মেনেকা গান্ধী দেশটির স্কুলগুলোতে ইসলাম ধর্মের ঐশী গ্রন্থ আল কুরআনসহ বিভিন্ন ধর্মের ধর্মীয় গ্রন্থ পাঠ্যবই হিসেবে অন্তর্ভুক্ত করার প্রস্তাব দিয়েছেন। যাতে শিশুরা বিভিন্ন ধর্ম সম্পর্কে শৈশবই অবগত হন এবং ধর্ম সম্পর্কের তাদের সঠিক অর্জন হয় এবং ভ্রান্তি দূর হয়।

তিনি বলেন, ‘স্কুলের শিক্ষার্থীদের পৃথিবীর ছয়টি ধর্মের শ্রেষ্ঠ পবিত্র গ্রন্থ সম্পর্কে ধারণা থাকবে হবে। বিশেষ করে কুরআন ও বাইবেল। এর মাধ্যমে তাদের মধ্যে বিভিন্ন ধর্ম সম্পর্কে বিরাজিত ভ্রান্তি ধারণা দূরীভূত হয়ে যাবে।

ভারতের এই মন্ত্রী জানান, ‘বর্তমান সময়ে বিশ্বে ধর্মীয় উত্তেজনা বিরাজ করছে। এর একটি কারণ হচ্ছে শিশুদের মধ্যে অন্যান্য ধর্ম সম্পর্কে অধিক জ্ঞান না থাকা। আর বড় হওয়ার পর ধর্মীয় শিক্ষা গ্রহণের সুযোগ না থাকা।

মেনেকা গান্ধী মানব সম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রণালয়ের নিকট আহ্বান জানান যে, স্কুলগুলোতে সপ্তাহে কমপক্ষে দুই দিন বিশ্বের ছয়টি ধর্মের পবিত্র গ্রন্থের বিষয়ে যেন ক্লাস নেয়া হয়।

আমরা নিজেদের ধর্মীয় গ্রন্থ অধ্যয়ন করেছি। এছাড়াও আমি কুরআন পড়েছি। ইসলাম ধর্মে ধারক ও বাহক হজরত মুহাম্মাদ (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) যুদ্ধের বিরোধিতা করতেন। আমাদের সময় স্কুলগুলোতে নৈতিকতা জ্ঞানের শিক্ষা দেয়া হত; কিন্তু এই ক্লাস অন্য কোন স্কুলে নেয়া হত না বলে জানান তিনি।

ভারতের স্কুলগুলোতে ইসলামসহ অন্যান্য ধর্মের ধর্মীয় গ্রন্থগুলোর ওপর শিক্ষা দিলে সহিংসতা অনেকাংশে কমে যাবে।

Facebook Comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» খাতুনগঞ্জের আড়ত থেকে বের হলো ১৫ টন পচা পেঁয়াজ

» আলফাডাঙ্গায় সাংবাদিক আহতের প্রতিবাদে মানববন্ধন ও স্বারকলিপি প্রদান

» আলফাডাঙ্গায় বারাশিয়া চন্দনা নদী দখল করে প্রভাবশালীর ভবন নির্মান

» মন্ত্রী-এমপিদের প্রতি কঠোর হুঁশিয়ারি প্রধানমন্ত্রীর

» ইঞ্জিনিয়ারিং ছেড়ে বাসের স্টিয়ারিং ধরলেন তরুণী!

» রিফাতকে হত্যার আগের দিনও নয়ন বন্ডের বাসায় যায় মিন্নি

» শ্রীপুরে টেক্সটাইল মিলে আগুন, দগ্ধ ৫

» শাকিব খানের ছবি থেকে বুবলী বাদ

» আজও অতি ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস, ভূমিধসের সতর্কতা

» সেরাদের লড়াইয়ে এগিয়ে সাকিব

» যেভাবে ৭ দিন সমুদ্রে ভেসে থাকার পর বাংলাদেশে জীবিত উদ্ধার হলেন রবীন্দ্রনাথ দাস

» দর্শনার্থীর মোবাইল কেড়ে নিয়ে বানরের সেলফি

» অভিনেতা অপূর্ব’র ছোট ভাই দ্বীপ আত্মহত্যা করেছেন

» টয়লেটে প্রসব, নিজে নাড়ি কেটে ছেলেকে ডাস্টবিনে ফেলে গেল মা!

» বিকিনি পরা ছবি শেয়ার করে লাইসেন্স হারালেন সুন্দরী চিকিৎসক!

Biggapon

Biggapon

সদস্য মণ্ডলীঃ-

সম্পাদকঃ এ, বি মালেক (স্বপ্নিল)
সহঃ সম্পাদকঃ মোঃ লতিফুল ইসলাম
উপদেষ্টাঃ আব্দুল্লাহ আল মামুন
আইটি উপদেষ্টাঃ মাহির শাহরিয়ার শিশির
আইটি সম্পাদকঃ আসাদ্দুজামান সাগর
প্রকাশক ও নির্বাহী পরিচালক (CEO):
ইঞ্জিনিয়ার এম, এ, মালেক (জীবন)

যোগাযোগঃ-

৮৬৮ কাজীপাড়া, মিরপুর-১০, মিরপুর, ঢাকা, বাংলাদেশ-১২১৬।
ইমেইলঃ info@dailynewsbd24.com, dailynewsbd247@gmail.com,
ওয়েবঃ www.dailynewsbd24.com
মোবাইলঃ +৮৮-০১৯৯৩৩৩৯৯৯৪-৯৯৬,
+৮৮-০১৭২১৫৬৭৭৮৯

Design & Devaloped BY Creation IT BD Limited

,

নারী ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রী মেনেকা গান্ধী ভারতের স্কুলে কুরআন শিক্ষার প্রস্তাব দিয়েছেন

ভারতের স্কুলগুলোর কচি-কাঁচা শিক্ষার্থীদের জন্য পবিত্র কুরআনুল কারিমসহ পৃথিবীর ছয়টি ধর্মীয় গ্রন্থ শিক্ষার আহ্বান জানান নারী ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রী মেনেকা গান্ধী। বর্তমান বিশ্বে চলমান ধর্মীয় উত্তেজনা ও সহিংসতা কমাতে ও ভ্রান্তি দূর করতে ধর্মীয় শিক্ষার বিকল্প নেই।

ভারতের নারী ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রী মেনেকা গান্ধী দেশটির স্কুলগুলোতে ইসলাম ধর্মের ঐশী গ্রন্থ আল কুরআনসহ বিভিন্ন ধর্মের ধর্মীয় গ্রন্থ পাঠ্যবই হিসেবে অন্তর্ভুক্ত করার প্রস্তাব দিয়েছেন। যাতে শিশুরা বিভিন্ন ধর্ম সম্পর্কে শৈশবই অবগত হন এবং ধর্ম সম্পর্কের তাদের সঠিক অর্জন হয় এবং ভ্রান্তি দূর হয়।

তিনি বলেন, ‘স্কুলের শিক্ষার্থীদের পৃথিবীর ছয়টি ধর্মের শ্রেষ্ঠ পবিত্র গ্রন্থ সম্পর্কে ধারণা থাকবে হবে। বিশেষ করে কুরআন ও বাইবেল। এর মাধ্যমে তাদের মধ্যে বিভিন্ন ধর্ম সম্পর্কে বিরাজিত ভ্রান্তি ধারণা দূরীভূত হয়ে যাবে।

ভারতের এই মন্ত্রী জানান, ‘বর্তমান সময়ে বিশ্বে ধর্মীয় উত্তেজনা বিরাজ করছে। এর একটি কারণ হচ্ছে শিশুদের মধ্যে অন্যান্য ধর্ম সম্পর্কে অধিক জ্ঞান না থাকা। আর বড় হওয়ার পর ধর্মীয় শিক্ষা গ্রহণের সুযোগ না থাকা।

মেনেকা গান্ধী মানব সম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রণালয়ের নিকট আহ্বান জানান যে, স্কুলগুলোতে সপ্তাহে কমপক্ষে দুই দিন বিশ্বের ছয়টি ধর্মের পবিত্র গ্রন্থের বিষয়ে যেন ক্লাস নেয়া হয়।

আমরা নিজেদের ধর্মীয় গ্রন্থ অধ্যয়ন করেছি। এছাড়াও আমি কুরআন পড়েছি। ইসলাম ধর্মে ধারক ও বাহক হজরত মুহাম্মাদ (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) যুদ্ধের বিরোধিতা করতেন। আমাদের সময় স্কুলগুলোতে নৈতিকতা জ্ঞানের শিক্ষা দেয়া হত; কিন্তু এই ক্লাস অন্য কোন স্কুলে নেয়া হত না বলে জানান তিনি।

ভারতের স্কুলগুলোতে ইসলামসহ অন্যান্য ধর্মের ধর্মীয় গ্রন্থগুলোর ওপর শিক্ষা দিলে সহিংসতা অনেকাংশে কমে যাবে।

Facebook Comments

সর্বশেষ আপডেট



এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সদস্য মণ্ডলীঃ-

সম্পাদকঃ এ, বি মালেক (স্বপ্নিল)
সহঃ সম্পাদকঃ মোঃ লতিফুল ইসলাম
উপদেষ্টাঃ আব্দুল্লাহ আল মামুন
আইটি উপদেষ্টাঃ মাহির শাহরিয়ার শিশির
আইটি সম্পাদকঃ আসাদ্দুজামান সাগর
প্রকাশক ও নির্বাহী পরিচালক (CEO):
ইঞ্জিনিয়ার এম, এ, মালেক (জীবন)

যোগাযোগঃ-

৮৬৮ কাজীপাড়া, মিরপুর-১০, মিরপুর, ঢাকা, বাংলাদেশ-১২১৬।
ইমেইলঃ info@dailynewsbd24.com, dailynewsbd247@gmail.com,
ওয়েবঃ www.dailynewsbd24.com
মোবাইলঃ +৮৮-০১৯৯৩৩৩৯৯৯৪-৯৯৬,
+৮৮-০১৭২১৫৬৭৭৮৯

Design & Devaloped BY Creation IT BD Limited