বিকাল ৩:৫৮ | রবিবার | ২০শে মে, ২০১৮ ইং | ৬ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

প্রাণ আপ

pran-up-add

জামায়াত-জাতীয় পার্টির ঘাঁটিতে ‘সিঁধ’ কাটছে আ’লীগ

সুন্দরগঞ্জ, গাইবান্ধা: শুধু সুন্দরগঞ্জ উপজেলা নিয়েই গঠিত গাইবান্ধা-১ আসন। ১৫টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভার এ আসনটি নানা কারণে বিভিন্ন সময় আলোচিত-সমালোচিত। জামায়াত-জাতীয় পার্টির ঘাঁটি হিসেবে পরিচিত গাইবান্ধা-১।

তবে সবশেষ উপ-নির্বাচনে জামায়াত-জাতীয় পার্টির ঘরে ‘সিঁধ’ কেটেছে আওয়ামী লীগ। উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে জামায়াত প্রার্থীর কাছে ৮ হাজার ভোটে হারলেও সংসদীয় আসনের উপ-নির্বাচনে ৩০ হাজারের বেশি ভোটে জয়ী হন আওয়ামী লীগ প্রার্থী।

স্বাধীনতার পর এ আসনে প্রায় সবসময় তৃতীয় অবস্থানে থাকা আওয়ামী লীগ সবশেষ উপজেলা নির্বাচনে দ্বিতীয় হয়। আর মার্চে এমপি লিটন হত্যার পর উপ-নির্বাচনে সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করে দলটি।

২০১৩ সালে একাত্তরে মানবতাবিরোধী অপরাধে জামায়াত নেতা দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীর রায় ও ২০১৪ সালে ৫ জানুয়ারির নির্বাচনের পর নজিরবিহীন সহিংসতা হয় সুন্দরগঞ্জে।

আর এসব সহিংসতায় সরাসরি নেতৃত্ব দেয় জামায়াত। যুক্ত ছিলো বিএনপির নেতাকর্মীরাও। এলাকার সাধারণ মানুষ ও রাজনীতিবিদদের মতে, এতো সহিংসতা সুন্দরগঞ্জের মানুষ একাত্তর সালেও দেখেনি।

২০১৪ সালের সংসদ নির্বাচনে অংশ নেয়নি বিএনপি-জামায়াত। সেবার জাতীয় পার্টির প্রার্থীকে বিপুল ভোটে হারিয়ে এমপি হন জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি মঞ্জুরুল ইসলাম লিটন।

২০১৬ সালের ৩১ ডিসেম্বর নিজ বাসায় খুন তিনি। লিটন হত্যার অভিযোগে আটক আছেন এই আসনে জাতীয় পার্টির সাবেক সংসদ সদস্য ও লিটনের কাছে হারা প্রার্থী আব্দুল কাদের খান।

২২ মার্চের উপ-নির্বাচনে ৯০ হাজার ভোট পেয়ে ৩০ হাজার ভোটের ব্যবধানে জাতীয় পার্টির শামীম হায়দার পাটোয়ারীকে হারান আওয়ামী লীগের গোলাম মোস্তফা আহমেদ। তিনি উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক।

ভোটের হিসাবে এ আসনে আওয়ামী লীগের অবস্থান কখনই খুব ভালো ছিলো না। স্বাধীনতার পর ’৭৩ সালে আওয়ামী লীগ প্রার্থী অ্যাডভোকেট শামসুল হক জিতলেও ১৯৭৯ সাল থেকে শুরু হয় পতন। সে বছর আসনটি যায় ইসলামিক ডেমোক্রেটিক লীগের হাতে। ১৯৮৬ থেকে ’৯১ পর্যন্ত টানা তিনবার এমপি হন জাতীয় পার্টির হাফিজুর রহমান প্রামাণিক।

স্বতন্ত্র প্রার্থী দুবার দ্বিতীয় অবস্থানে থাকলেও আওয়ামী লীগের অবস্থান চলে যায় তৃতীয় ও চতুর্থ স্থানে। জামায়াত ভোটের দিক থেকে এগিয়ে ছিলো আওয়ামী

Facebook Comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» রাতের আঁধারে সড়ক ডিভাইডার অপসারণ করলেন সিসিক মেয়র

» প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের তৃতীয় ধাপের পরীক্ষা ০১ জুন

» এক নজরে রংপুর বিভাগের ঐতিহ্যবাহী স্থান সমূহ

» অতি-সাম্প্রতিক ১০০টি প্রশ্ন ও উত্তর

» রমজানে নতুন অফিস সময়সূচি

» সমালোচনা নাকি ব্যক্তিগত আক্রমণ নুসরাত ফারিয়ার

» দুই সিটিতে জয় নিশ্চিত করতে চায় আওয়ামী লীগ

» ‘খালেদা জিয়ার চিকিৎসার উদ্যোগ নিচ্ছে না সরকার’ || জাতীয় কমিটি

» দিনাজপুর বোর্ডের এসএসসিতে পাশের হার ৭৭.৬২: শীর্ষে রংপুর জেলা

» এসএসসিতে পাসের হার ৭৭.৭৭ শতাংশ

» বজ্রপাত থেকে রক্ষা পেতে সচেতনতা

» বিখ্যাত ব্যক্তিদের কিছু বিখ্যাত উক্তি

» ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির আবেদন শুরু ১৩ মে

» পরিবার কল্যাণ পরিদর্শিকা প্রশিক্ষণার্থী পদের প্রবেশপত্র প্রকাশ

» দায়িত্ববান নারী পুলিশ অফিসার || পপি

Biggapon

Biggapon

সদস্য মণ্ডলীঃ-

সম্পাদকঃ এ, বি মালেক (স্বপ্নিল)
সহঃ সম্পাদকঃ মোঃ লতিফুল ইসলাম
উপদেষ্টাঃ আব্দুল্লাহ আল মামুন
আইটি উপদেষ্টাঃ মাহির শাহরিয়ার শিশির
আইটি সম্পাদকঃ আসাদ্দুজামান সাগর
প্রকাশক ও নির্বাহী পরিচালক (CEO):
ইঞ্জিনিয়ার এম, এ, মালেক (জীবন)

যোগাযোগঃ-

৮৬৮ কাজীপাড়া, মিরপুর-১০, মিরপুর, ঢাকা, বাংলাদেশ-১২১৬।
ইমেইলঃ info@dailynewsbd24.com, dailynewsbd247@gmail.com,
ওয়েবঃ www.dailynewsbd24.com
মোবাইলঃ +৮৮-০১৯৯৩৩৩৯৯৯৪-৯৯৬,
+৮৮-০১৭২১৫৬৭৭৮৯

Design & Devaloped BY Creation IT BD Limited

,

জামায়াত-জাতীয় পার্টির ঘাঁটিতে ‘সিঁধ’ কাটছে আ’লীগ

সুন্দরগঞ্জ, গাইবান্ধা: শুধু সুন্দরগঞ্জ উপজেলা নিয়েই গঠিত গাইবান্ধা-১ আসন। ১৫টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভার এ আসনটি নানা কারণে বিভিন্ন সময় আলোচিত-সমালোচিত। জামায়াত-জাতীয় পার্টির ঘাঁটি হিসেবে পরিচিত গাইবান্ধা-১।

তবে সবশেষ উপ-নির্বাচনে জামায়াত-জাতীয় পার্টির ঘরে ‘সিঁধ’ কেটেছে আওয়ামী লীগ। উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে জামায়াত প্রার্থীর কাছে ৮ হাজার ভোটে হারলেও সংসদীয় আসনের উপ-নির্বাচনে ৩০ হাজারের বেশি ভোটে জয়ী হন আওয়ামী লীগ প্রার্থী।

স্বাধীনতার পর এ আসনে প্রায় সবসময় তৃতীয় অবস্থানে থাকা আওয়ামী লীগ সবশেষ উপজেলা নির্বাচনে দ্বিতীয় হয়। আর মার্চে এমপি লিটন হত্যার পর উপ-নির্বাচনে সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করে দলটি।

২০১৩ সালে একাত্তরে মানবতাবিরোধী অপরাধে জামায়াত নেতা দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীর রায় ও ২০১৪ সালে ৫ জানুয়ারির নির্বাচনের পর নজিরবিহীন সহিংসতা হয় সুন্দরগঞ্জে।

আর এসব সহিংসতায় সরাসরি নেতৃত্ব দেয় জামায়াত। যুক্ত ছিলো বিএনপির নেতাকর্মীরাও। এলাকার সাধারণ মানুষ ও রাজনীতিবিদদের মতে, এতো সহিংসতা সুন্দরগঞ্জের মানুষ একাত্তর সালেও দেখেনি।

২০১৪ সালের সংসদ নির্বাচনে অংশ নেয়নি বিএনপি-জামায়াত। সেবার জাতীয় পার্টির প্রার্থীকে বিপুল ভোটে হারিয়ে এমপি হন জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি মঞ্জুরুল ইসলাম লিটন।

২০১৬ সালের ৩১ ডিসেম্বর নিজ বাসায় খুন তিনি। লিটন হত্যার অভিযোগে আটক আছেন এই আসনে জাতীয় পার্টির সাবেক সংসদ সদস্য ও লিটনের কাছে হারা প্রার্থী আব্দুল কাদের খান।

২২ মার্চের উপ-নির্বাচনে ৯০ হাজার ভোট পেয়ে ৩০ হাজার ভোটের ব্যবধানে জাতীয় পার্টির শামীম হায়দার পাটোয়ারীকে হারান আওয়ামী লীগের গোলাম মোস্তফা আহমেদ। তিনি উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক।

ভোটের হিসাবে এ আসনে আওয়ামী লীগের অবস্থান কখনই খুব ভালো ছিলো না। স্বাধীনতার পর ’৭৩ সালে আওয়ামী লীগ প্রার্থী অ্যাডভোকেট শামসুল হক জিতলেও ১৯৭৯ সাল থেকে শুরু হয় পতন। সে বছর আসনটি যায় ইসলামিক ডেমোক্রেটিক লীগের হাতে। ১৯৮৬ থেকে ’৯১ পর্যন্ত টানা তিনবার এমপি হন জাতীয় পার্টির হাফিজুর রহমান প্রামাণিক।

স্বতন্ত্র প্রার্থী দুবার দ্বিতীয় অবস্থানে থাকলেও আওয়ামী লীগের অবস্থান চলে যায় তৃতীয় ও চতুর্থ স্থানে। জামায়াত ভোটের দিক থেকে এগিয়ে ছিলো আওয়ামী

Facebook Comments

সর্বশেষ আপডেট



এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সদস্য মণ্ডলীঃ-

সম্পাদকঃ এ, বি মালেক (স্বপ্নিল)
সহঃ সম্পাদকঃ মোঃ লতিফুল ইসলাম
উপদেষ্টাঃ আব্দুল্লাহ আল মামুন
আইটি উপদেষ্টাঃ মাহির শাহরিয়ার শিশির
আইটি সম্পাদকঃ আসাদ্দুজামান সাগর
প্রকাশক ও নির্বাহী পরিচালক (CEO):
ইঞ্জিনিয়ার এম, এ, মালেক (জীবন)

যোগাযোগঃ-

৮৬৮ কাজীপাড়া, মিরপুর-১০, মিরপুর, ঢাকা, বাংলাদেশ-১২১৬।
ইমেইলঃ info@dailynewsbd24.com, dailynewsbd247@gmail.com,
ওয়েবঃ www.dailynewsbd24.com
মোবাইলঃ +৮৮-০১৯৯৩৩৩৯৯৯৪-৯৯৬,
+৮৮-০১৭২১৫৬৭৭৮৯

Design & Devaloped BY Creation IT BD Limited